কর্মীদের সন্তুষ্ট রাখতে পদোন্নতি দিচ্ছে ইসলামী ব্যাংক গভর্নরের সঙ্গে দেখা করলেন নতুন চেয়ারম্যান

ব্যবস্থাপনায় বড় ধরণের পরিবর্তনের পর এবার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদোন্নতির দিকে নজর দিয়েছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড। গতকাল মঙ্গলবার পদোন্নতির জন্য মৌখিক পরীক্ষা দিয়েছে ব্যাংকটির উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা। দুই পর্বে ৭৫ জন করে মোট ১৫০ জনের  ভাইভা নেওয়া হয়েছে। আর ৫৫ মিনিটেই ৭৫ জনের ভাইভা শেষ করে দেওয়া হয়েছে। তাই ওই ভাইভাকে ‘নামকাওয়াস্তে’ বলেই অভিহিত করেছেন অনেকে। এদিকে ব্যাংটির নতুন

চেয়ারম্যান আরাস্তু খান গতকাল বিকালে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবীরের সঙ্গে সাক্ষাত্ করতে গিয়েছিলেন। যদিও আজ বুধবার গভর্নরের সঙ্গে সাক্ষাতের দিন ধার্য ছিল।

 

ইসলামী ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, প্রিন্সিপাল অফিসার থেকে সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার পদে পদোন্নতির জন্য মৌখিক পরীক্ষা (ভাইভা) নেওয়া হয়েছে। এজন্য গতকাল সকালে ৭৫ জন এবং বিকালে ৭৫ জনের ভাইভা নেওয়া হয়েছে। সবাইকে একসঙ্গে বসিয়ে একই প্রশ্ন করা হয়েছে। যা ইসলামী ব্যাংকের ইতিহাসে কখনো হয়নি। ওই ভাইভাতে যেসব প্রশ্ন করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে— রুপকল্প ২০২১ এ সম্পর্কে কি জানেন, মুদ্রাস্ফীতি কি, মুদ্রাস্ফীতির ফলে এক্সপোর্ট ইমপোর্টে কী প্রভাব পড়ে, অ্যামিকেবল সেটেলমেন্ট কী ইত্যাদি। ব্যাংকটির মিশন-ভিশন ইসলামী ধারার হলেও ইসলামী ব্যাংকিং নিয়ে তেমন কোন প্রশ্ন করা হয়নি। এদিকে আজও একই পোস্টের জন্য ভাইভা অনুষ্ঠিত হবে। আজ তিনটি গ্রুপের ভাইভা অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে প্রত্যেক গ্রুপে ১৫০ জন করে থাকবে। আর প্রত্যেক গ্রুপের জন্য একঘন্টা সময় থাকবে। একইভাবে আগামী রবিবার সিনিয়র অফিসার থেকে প্রিন্সিপাল অফিসার পদে পদোন্নতির ভাইভা শুরু হবে। ওইদিন ৩০০ জন  সিনিয়র অফিসার ভাইভা দেবেন বলে জানা গেছে।

 

গতকালের ভাইভা বোর্ডে ছিলেন ব্যাংকটির এমডি মো. আব্দুল হামিদ মিঞা, ডিএমডি মাহবুব-উল-আলম, মো. শামসুজ্জামান, আব্দুস সাদেক ভুঁইয়া ও আবু রেজা মো. ইয়াহিয়া, ইভিপি মো. ইয়ানুর রহমান, ইভিপি এবং সিএফও মো. শহীদ উল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

 

জানা গেছে, ২০১৫ সাল থেকে ব্যাংকের বিভিন্ন পদে প্রমোশন ডিউ রয়েছে। এজন্য গত বছরই বেশ বিভিন্ন সময় অনেকগুলো পদেই ভাইভা নেওয়া হয়েছিল। এখন দেখার বিষয় যাদের ভাইভা নেওয়া হচ্ছে তাদের প্রমোশন ২০১৬ সালে জানুয়ারি নাকি চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

 

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, মূলত গভর্নরের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের জন্যই ইসলামী ব্যাংকের নতুন চেয়ারম্যান আরাস্তু খান বাংলাদেশ ব্যাংকের এসেছিলেন। তবে সৌজন্য সাক্ষাতের পাশাপাশি তিনি একান্তে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে গভর্নরের সঙ্গে আলাপ করেন। এ বিষয়ে আরাস্তু খান বলেন, গভর্নরের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের জন্যই গিয়েছিলাম।

 

ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনায় বিরাট পরিবর্তনের পর শীর্ষ সারির কর্মকর্তাদের ক্ষেত্রেও ঘটেছে বৈপ্লবিক পরিবর্তন (রেডিক্যাল চেঞ্জ) এসেছে। এ পর্যায়ে কমপক্ষে ৩৫ কর্মকর্তার উইং, ডিভিশন, ডিপার্টমেন্ট বদল করা হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে ডিএমডি আব্দুস সাদেক ভুঁইয়াকে আন্তর্জাতিক ব্যাংকিং উইং থেকে বদলি করে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি উইং, মো. শামসুজ্জামানকে অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ও পরিপালন উইং থেকে ব্যাংক পরিচালন উইং, মনিরুল মওলাকে কর্পোরেট বিনিয়োগ উইং-১ থেকে রিটেইল বিনিয়োগ উইং, মো. ইকবাল কবির মোহন মিয়াকে কর্পোরেট বিনিয়োগ উইং-২ থেকে উন্নয়ন উইং, মোহাম্মদ আলীকে বিনিয়োগ প্রশাসন উইং থেকে ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা উইং, আবু রেজা মো. ইয়াহিয়াকে পর্ষদ সচিবালয় থেকে অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ও পরিপালন উইং এ বদলি করা হয়েছে। ইভিপি আব্দুল জব্বারকে রিস্ক মেনেজমেন্ট উইং থেকে সরিয়ে একধাপ নিচে নামিয়ে আইএডি ইনভেস্টমেন্ট ডিভিশনের প্রধান করা হয়েছে। ইভিপি মোশাররফ হোসেনকে ডেভলপমেন্ট উইং থেকে নিচের জায়গা ঢাকা সেন্ট্রাল জোনাল হেড করা হয়েছে। একইভাবে হিউম্যান রিসোর্স ডিভিশনের প্রধান মো. ইয়ানুর রহমানকে করা হয়েছে ঢাকা সাউথ জোনের হেড। ইভিপি মো. শহীদ উল্লাহ, এফসিএ কে  চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার থেকে আগ্রাবাদ শাখার ব্যবস্থাপক করা হয়েছে। ব্যাংকটির খাতুনগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপককে বদলি করে হেড অফিসে নিয়ে আসা হয়েছে।

 

গত বৃহস্পতিবার ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মোহাম্মদ আব্দুল মান্নানকে সরিয়ে দেওয়া হয়। একই সঙ্গে পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মুস্তফা আনোয়ার এবং ভাইস চেয়ারম্যান মো. আজিজুল হককেও সরানো হয়। ব্যাংকটির নতুন চেয়ারম্যান হিসাবে নির্বাচিত করা হয় আরাস্তু খানকে। আর নতুন ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে অধ্যাপক সৈয়দ আহসানুল আলমকে নির্বাচিত করা হয়। পরে গত সোমবার নতুন এমডি হিসাবে যোগ দিয়েছেন মো. আব্দুল হামিদ মিঞা। সূত্রঃ ইত্তেফাক


যে কোন চাকরির পরীক্ষার সময়সূচী প্রকাশ, ফলাফল এবং চাকরি বিষয়ে সকল তথ্য এখন আপনার হাতের মুঠোতে পাবেন ।
যে কোন পরীক্ষার সময়সূচী প্রকাশ হলে আপনার কাছে Notification যাবে । আপনাকে আর চাকরির পরীক্ষার সময়সূচী খুজতে হবে না। এমন কি চাকরি বিষয়ে আপনার যা প্রয়োজন সব পাবেন"সকল চাকরির পরিক্ষার সময়সূচী অ্যালার্ট" এই Android apps এর মাধ্যমে।
apps এর নামঃ সকল চাকরির পরিক্ষার সময়সূচী অ্যালার্ট

পাবেন play Store: সকল চাকরির পরিক্ষার সময়সূচী অ্যালার্ট

সরাসরি ডাউনলোড লিংকঃ jobs Exam Alert
চাকরির বিজ্ঞপ্তির জন্যঃচাকরির অ্যালার্ট

Like Our Education page

[X]
Advertise here