যে কোন চাকরির পরীক্ষার সময়সূচী এবং ফলাফল অ্যালার্ট পেতে আমাদের Android apps আপনার মোবাইলে রাখুনঃ

আপনাকে আর কোন চাকরির তথ্য খুঁজতে হবে না। এই Android apps আপনাকে Notification দিবে। 

 Android apps Download link:  EXam Alert  BD 

শিগগিরই সার্কুলার ৩৮তম বিসিএসের

জাতীয় পরিচিতিপত্র (এনআইডি) নম্বর ছাড়া আগামীতে কোনো পরীক্ষার্থী বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন না। বিসিএস পরীক্ষায় শতভাগ স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার জন্য সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ৩৮তম বিসিএস থেকে এই নিয়ম কার্যকর হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পিএসসির চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক। তিনি বলেছেন, বৃহস্পতিবার কমিশন সভায় বিসিএস পরীক্ষায় এনআইডি নম্বর বাধ্যতামূলক করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ৩৮তম বিসিএসের অনলাইনে আবেদন করতে এনআইডি নম্বর লাগবে। যারা

বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন তারা ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে। ফলে যার এনআইডি নেই, তিনি পরীক্ষা দিতে পারবেন না।

 

এদিকে, ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষার সিলেবাসে আসছে নানান পরিবর্তন। বাংলা ও ইংরেজিতে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। একইভাবে লিখিত পরীক্ষায় বাংলাদেশ বিষয়াবলিতে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের ওপর থাকবে ৫০ নম্বরের প্রশ্ন।

 

বিসিএস পরীক্ষায় এনআইডি বাধ্যতামূলক করার বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছে, ২২/২৩ বছর বয়সী গ্র্যাজুয়েটরাই বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নেন। তারা সমাজের সবচেয়ে প্রতিভাবান। রাষ্ট্রের নাগরিক হিসাবে তাদের কাছে এনআইডি থাকাও বাধ্যতামূলক। তাছাড়া বিসিএসে এনআইডি নম্বর দেওয়া বাধ্যতামূলক হলে শতভাগ স্বচ্ছতা নিশ্চিত হবে। সম্প্রতি পিএসসিতে দেখা গেছে, অন্যের সার্টিফিকেটসহ নাম, ঠিকানা ব্যবহার করার পর শুধু ছবি পরিবর্তন করে আরেকজন পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। যদি এখানে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির এনআইডি নম্বর নেওয়া হতো তাহলে প্রাথমিকভাবেই পরীক্ষার্থীকে শনাক্ত করা যেতো। এই উপলব্ধি থেকেই পিএসসি বিসিএস পরীক্ষায় এনআইডি বাধ্যতামূলক করেছে। আগামীতে নন-ক্যাডারেও বাধ্যতামূলক করা হবে।

 

পিএসসির চেয়ারম্যানের মতে, বিসিএসের অনলাইন আবেদনে এতদিন স্থায়ী-অস্থায়ী ঠিকানা, সব সনদের রোল নম্বর, প্রতিষ্ঠানের নাম রেজাল্টসহ অন্যান্য কিছু তথ্য চাওয়া হলেও এবার থেকে ন্যাশনাল আইডি নম্বর চাওয়া হবে। এখন সব কিছুতেই ন্যাশনাল আইডি নম্বর লাগে। ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে ও সিম কিনতে গেলেও ন্যাশনাল আইডি নম্বর লাগে। তাছাড়া যার ন্যাশনাল আইডি নেই তিনি কীভাবে প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ আশা করেন? ন্যাশনাল আইডি নম্বর না থাকলে আবেদন করতে পারবেন না। ফর্মে শুধু নাম আর ছবি লাগিয়ে আবেদন করা হয়। কেউ যদি ছবি বদলে ফেলে আপনি তো তাকে চিনতে পারবেন না। এজন্য এনআইডি নম্বর নেওয়া হবে।

 

তিনি আরো বলেন, আগে একবার অপটিকাল মার্ক রিডার (ওএমআর) পদ্ধতিতে খাতা মূল্যায়ন করা হলেও আগামী বিসিএস পরীক্ষা থেকে দুইবার ওএমআর পদ্ধতিতে খাতা মূল্যায়ন করা হবে।

 

এদিকে, আইনগতভাবে এখনো জাতীয় পরিচয়পত্রের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়নি। ২০১০ সালে ‘জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন এবং সংশ্লিষ্ট আইনে জাতীয় পরিচয়পত্র বাধ্যতামূলক না করার কথা বলা আছে। এ বিষয়ে পিএসসির চেয়ারম্যান বলেন, আইনানুযায়ী কখনো রাষ্ট্রের সকল নাগরিকের হাতে এনআইডি তুলে দেওয়া সম্ভব হবে না। যেহেতু ২২/২৩ বছর বয়সীরা সাধারণত বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নেন, সেহেতু তারা প্রত্যেকেই এনআইডি ধারী। তাছাড়া রাষ্ট্রের প্রতিটি কাজে এখন এনআইডি লাগে। ফলে এনআইডি নেই- এমন পরীক্ষার্থীর সংখ্যা পাওয়া যাবে না।

 

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী ইত্তেফাককে বলেন, রাষ্ট্রের বেশিরভাগ কাজকর্মে এনআইডি লাগে। যেহেতু বিসিএস পরীক্ষায় যারা অংশ নেন- তারা ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে। ফলে এনআইডি গ্রহণ করা একপ্রকার ওইসব পরীক্ষার্থীর জন্য বাধ্যতামূলক। পিএসসি বাস্তবতা অনুধাবন করে হয়তো এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

 

এ মাসেই সার্কুলার

 

পিএসসির চেয়ারম্যান চলতি মাসেই ৩৮তম বিসিএসের সার্কুলার জারি করার কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, দুই হাজার একশ পদে নিয়োগ দিতে এ মাসেই ৩৮তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। লিখিত পরীক্ষায় ৯০০ নম্বরের মধ্যে বাংলাদেশ বিষয়াবলীর মধ্যে আলাদা করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে ৫০ নম্বরের প্রশ্ন রাখা হবে। তবে পিএসসির সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ১৫ জুনের মধ্যে সার্কুলার জারি করা হচ্ছে। সার্কুলার জারির সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। সূত্রঃ ইত্তেফাক 

 

Like Our Education page

[X]
Advertise here